এডিসি ভোটে আইপিএফটি-র সাথে আসন সমঝোতা ইস্যুতে জনজাতি মোর্চা নেতৃত্বের সাথে বিজেপি-র রাজ্য নেতৃত্বের বিরোধ তুঙ্গে

নিজস্ব প্রতিবেদন

আগরতলা, মার্চ ১৫, : এডিসি ভোটে আইপিএফটি-র সাথে আসন সমঝোতার সিদ্ধান্ত দলের উপজাতি সংগঠন বিজেপি-র জনজাতি মোর্চার মাঠ পর্যায়ের কর্মী, সমর্থক ও নেতারা কোন ভাবেই মেনে নিতে পারছেনা।

১৪ মার্চ সকাল পর্যন্ত যতদূর খবর পাওয়া গেছে জনজাতি মোর্চা কম করেও নয়টি আসনে নিজেদের লোকদের এডিসি ভোটে দলের অফিসিয়াল প্রার্থীর বিপরীতে প্রার্থী দাঁড় করিয়েছে। এবং বহু ক্ষেত্রে জনজাতি মোর্চার নেতৃবৃন্দ আইপিএফটি-র সাথে আসন সোমঝোতার বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে সমালোচনা মুখর হয়েছেন।

এমনি একটি ঘটনায় গতকাল ডেমছড়া কচুছড়া আসনটি আইপিএফটি প্রার্থীকে ছেড়ে দেওয়ার প্রতিবাদে দলের জনজাতি মোর্চার নেতৃত্ব কমলপুর প্রেস ক্লাবে প্রকাশ্যে প্রেস কনফারেন্স করেই ঘোষনা দিয়েছেন তারা কোনভাবেই আইপিএফটি-র প্রার্থীকে ছোট দেবেন না। এবং তাদের অভিযোগ, গত বিধানসভা ভোটের পর থেকে জনজাতি মোর্চার একাধিক কর্মী সমর্থক আইপিএফটি-র দুষ্কৃতিদের হাতে আক্রান্ত হয়েছেন। প্রতিবাদে ডেমছড়া কচুছড়া কেন্দ্রে জনজাতি মোর্চা কুমার হালামকে তাদের প্রার্থী হিসাবে ভোটে দাঁড় করিয়েছেন। জানা গেছে, কুমার হালাম বিজেপি-র রাজ্য কমিটির সদস্য।

একই রকম ভাবে মনু বনকুলের বিজেপি-র জনজাতি নেতা আইগ্যা মগ গত ১৩ই মার্চ দল ছেড়ে তিপ্রা পার্টিতে যোগদান করেছেন। তারও একই অভিযোগ। তিনি প্রকাশ্যেই বলে বেড়াচ্ছেন বিজেপিতে পুরানো বিজেপি নেতাদের কোন কদর নেই। দলের শীর্ষ নেতৃত্ব স্বার্থপরের মতো সব সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন ভোটে জেতার জন্য। নীতি আদর্শের কোন বালাই নেই দলে।

তাছারা দলের শীর্ষ জনজাতি নেতা রেবতি ত্রিপুরা আই পি এফ টি-র সাথে আসন সমঝোতা নিয়ে ক্ষুব্ধ হয়ে এডিসি ভোটের মুখে দিল্লী চলে গেছেন। একই রকমভাবে দলের জনজাতি এম এল এ-রাও অনেকেই আইপিএফটির সাথে আসন সমঝোতা ইস্যূতে বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্বের একতরফা সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ। রেবতি ত্রিপুরা সহ অতুল দেববর্মা, দিবাচন্দ্র রাংখল, বীরেন্দ্র দেববর্মা, বুর্বোমোহন ত্রিপুরা, রামপদ জমাতিয়া ও পরিমল দেববর্মা এডিসি ভোটের প্রচার একরকম বন্ধ রেখে ঘরে বসে রয়েছেন। পরিমল দেববর্মার রাগ কমাতে খোদ মুখ্যমন্ত্রী দলের কেন্দ্রীয় প্রভারী বিনোদ সোনকর ও খোদ দলের রাজ্য সভাপতি ডাঃ মানিক সাহা আমবাসায় ছুটে গেছিলেন। কিন্তু কোন ফল হয়নি। তিনি গত ১৩ মার্চ টিভি-র ক্যামেরার সামনে আইপিএফটি-র সাথে বিজেপি নেতৃত্বের একতরফা আসন সমঝোতার বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন। এবং আমবাসা, গন্ডাছড়া সহ তার বিধানসভা এলাকার বিজেপি ভোটারদের আইপিএফটিকে ভোট না দিতে আহ্বান জানিয়েছেন।

আগামী ১৭ই মার্চ মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। এখন এটাই দেখার বিজেপি-র শীর্ষ রাজ্য নেতৃত্ব দলের শীর্ষ জনজাতি মোর্চা নেতাদের যারা প্রকাশ্যেই দলীয় অনুশাসনের বিরুদ্ধে গিয়ে আইপএফটি-র সাথে আসন সমঝোতার সিদ্ধান্ত মানবেননা বলে ঘোষণা দিয়ে প্রকাশ্যে বিবৃতি দিচ্ছেন দল তাদের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা গ্রহন করেন।


You can post your comments below  
নিচে আপনি আপনার মন্তব্য বাংলাতেও লিখতে পারেন।  
বিঃ দ্রঃ
আপনার মন্তব্য বা কমেন্ট ইংরেজি ও বাংলা উভয় ভাষাতেই লিখতে পারেন। বাংলায় কোন মন্তব্য লিখতে হলে কোন ইউনিকোড বাংলা ফন্টেই লিখতে হবে যেমন আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড (Avro Keyboard)। আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ডের সাহায্যে মাক্রোসফট্ ওয়ার্ডে (Microsoft Word) টাইপ করে সেখান থেকে কপি করে কমেন্ট বা মন্তব্য বক্সে পেস্ট করতে পারেন। আপনার কম্পিউটারে আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড বাংলা সফ্টওয়ার না থাকলে নিম্নে দেয়া লিঙ্কে (Link) ক্লিক করে ফ্রিতে ডাওনলোড করে নিতে পারেন।
 
Free Download Avro Keyboard  
Name *  
Email *  
Address  
Comments *  
 
 
Posted comments
Till now no approved comments is available.