মা নয়, চার বছরের শিশু কন্যাকে বাবার হাতে তোলে দিল বিলোনীয়ায আদালত

নিজস্ব প্রতিবেদন

আগরতলা, মার্চ ৮, : চার বছরের শিশু কন্যা মৌমিতাকে কার কোলে আশ্রয়‍ পাবে । বিচারকের রায় কোন দিকে যাবে সেই নিয়ে রাজ্যের জনগনের মধ্যে ছিল চর্চিত বিষয় । কেউ বলছে জন্মদাত্রী মা পক্ষে রায় যাবে, আবার কেউ বলছে জন্ম দাতা পিতার পক্ষে যাবে । সব কিছু মিলিয়ে ছিল একটা

উৎকণ্ঠা । অবশেষে সব উৎকণ্ঠা ও জল্পনা কল্পনার অবসান হলো সোমবার দুপুরে বিচারকের রায়ে ।

সকাল থেকে আস্তে আস্তে বিলোনিয়া আদালত চত্বরে উৎসাহি কিছু সংখ্যক মানুষের ভিড় জমে যায় । সমস্ত দিক থেকে বিচার বিবেচনা করে বিলোনিয়া জেলা ও দায়রা আদালতের বিচারক রায় দেন মৌমিতা পিতার কাছেই থাকবে । এই রায় বের হবার পর খুশি আদালতে চত্বরের উৎসাহি মানুষদের মধ্যে । পাশাপাশি খুশিতে দু চোখ দিয়ে জল গড়িয়ে পড়তে দেখা গেল মৌমিতার পিতা মিষ্ঠু দেবনাথের । বিচারকের রায়ের পর জন্মদাত্রী মা মাথা পেতে নিয়ে একবারের জন্য মেয়ে মৌমিতাকে কোলে নেওয়ার জন্য হাত পাততেই মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে মৌমিতা । যতবার কোলে নেওয়ার চেষ্টা করছে ততবারই বাবার কোল থেকে মায়ের কোলে যায় নি ।জোর করে কোলে নিতে চাইলেও কেঁদে ওঠে মৌমিতা ।

উল্লেখ্য মৌমিতার বয়স যখন দেড় বছরের সেই সময় মিষ্টু দেবনাথের স্ত্রী রেশমী দেবনাথ মেয়েকে বাপের বাড়িতে ফেলে রেখে চলে যায় । রেশমীর বাবা অর্থাৎ মিষ্টুর শ্বশুর , মিষ্টুকে বাড়িতে ডেকে নিয়ে গিয়ে নাতনি অর্থাৎ মৌমিতাকে নিয়ে যাওয়ার জন্য বলার পর বিলোনিয়া বরোজ কলোনি এলাকাতে সালিশী সভার মাধ্যমে মাতব্বরদের উপস্থিতিতে স্টাম্প পেপারের লিখিত মূলে হস্তাক্ষর করে বাড়িতে নিয়ে আসে দেড় বছরের মৌমিতাকে । মিষ্টু তার স্ত্রী রেশমী দেবনাথের খোঁজ নিয়ে জানতে পারে সাতমুড়াস্থিত এক যুবকের হাত ধরে সুখের ঘর বেঁধেছে । এরপর দেড় বছরের শিশু কন্যা মৌমিতা কে নিয়ে আগরতলা রানীর বাজার এলাকার বোনের বাড়িতে চলে যায় । সেখানে কাকা সহ পিসি ও বাবা মিলে সবাই লালন পালন করে বড়ো করে তোলে মৌমিতাকে । একফোঁটা মায়ের দুধ পাওয়ার আত্মনাদ করা সেই ছোট্ট মৌমিতা বর্তমানে চার বছর । সেই সময় এই মৌমিতার জন্য মন কাঁদে নি জন্মদাত্রী মার রেশমীর । আড়াই বছরের পর মাতৃত্বের দাবি নিয়ে মৌমিতাকে ফিরে পাওয়া জন্য আদালতে স্মরনাপন্ন হয় । আদালতের নির্দেশ মোতাবেক বিলোনিয়া মহিলা থানার পুলিশ সহ রানীর বাজার থানার পুলিশ আগরতলা রানীর বাজার এলাকায় বোনের বাড়িতে গিয়ে , চার বছরে শিশু কন্যা মৌমিতা সহ মিষ্টু দেবনাথকে নিয়ে এসে রবিবার সকালে আদালতে তোলে । আদালতের বিচারক মৌমিতাকে মা রেশমীর কাছে তোলে দেওয়ার রায়ের পর পুলিশ বাপের কোল থেকে মৌমিতাকে নিয়ে রেশমীর কোলে তুলে দিতে চাইলেও বার বার ব্যর্থ হয় । আদালত চত্বরের মধ্যে চার বছরের শিশুকন্যা মৌমিতা কাঁদতে কাঁদতে বাবার গলা জড়িয়ে ধরে বলে আমি বাবাকে ছাড়া কোথাও যাবো না । এমতাবস্থায় অবস্থায় বিলোনিয়া দায়রা আদালতের বিচারক আবারও রায় দেন একদিনের জন্য 4 বছরের শিশু কন্যা মার কাছে থাকুক সোমবার দিন সম্পূর্ণ হেয়ারিং হবে । সে মোতাবেক সোমবার রেশমির আবেদন খারিজ করে দিয়ে বিলোনিয়া জেলা ও দায়রা আদালতের বিচারক সবকিছু শোনার পর বিচার বিবেচনা করে মৌমিতা, পিতা মিষ্টু দেবনাথের কাছে থাকবে এই রায় দেন ।


You can post your comments below  
নিচে আপনি আপনার মন্তব্য বাংলাতেও লিখতে পারেন।  
বিঃ দ্রঃ
আপনার মন্তব্য বা কমেন্ট ইংরেজি ও বাংলা উভয় ভাষাতেই লিখতে পারেন। বাংলায় কোন মন্তব্য লিখতে হলে কোন ইউনিকোড বাংলা ফন্টেই লিখতে হবে যেমন আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড (Avro Keyboard)। আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ডের সাহায্যে মাক্রোসফট্ ওয়ার্ডে (Microsoft Word) টাইপ করে সেখান থেকে কপি করে কমেন্ট বা মন্তব্য বক্সে পেস্ট করতে পারেন। আপনার কম্পিউটারে আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড বাংলা সফ্টওয়ার না থাকলে নিম্নে দেয়া লিঙ্কে (Link) ক্লিক করে ফ্রিতে ডাওনলোড করে নিতে পারেন।
 
Free Download Avro Keyboard  
Name *  
Email *  
Address  
Comments *  
 
 
Posted comments
Till now no approved comments is available.