এডিসি ভোটের মুখে ফের পূর্ত কেলেঙ্কারী মামলা প্রকাশ্যে আনা হচ্ছে, চার্জশিট শীঘ্রই, বরখাস্ত সব পুলিশ আধিকারিকদেরই ফিরিয়ে নেওয়া হলো!

নিজস্ব প্রতিবেদন

আগরতলা, জানুয়ারি ১৩, : প্রাক্তন পূর্তমন্ত্রী বাদল চৌধুরী, পূর্ত সচিব ওয়াই পি সিং ও পূর্ত মুখ্যবাস্তুকার সুনীল দাস এর বিরুদ্ধে খুব শীঘ্রই সি আই ডি শাখা চার্জশিট আদালতে পেশ করছে। আসন্ন এডিসি ভোটের মুখে বহু চর্চিত পূর্তদপ্তরের উড়ালপুল মামলাটিকে ফের জন সমক্ষে নিয়ে আসার লক্ষ্যেই আসন্ন এডিসি ভোটের মুখে বিজেপি-আইপিএফটি সরকারের এই তৎপরতা বলে প্রাপ্ত খবরে প্রকাশ।

সংবাদসূত্রে জানাগেছে, তথাকথিত এই পূর্ত মামলার চার্জশিট সাজাতে ইতিমধ্যেই নয়া এডভোকেট জেনারেলকে অতি দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করতে মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে, ইতিমধ্যেই দেড় বছর হয়ে গেছে রাজ্য সরকারের পুলিশ বহু চর্চিত এই মামলার তদন্ত শুরু করলেও এখন পর্যন্ত চার্জশিট তৈরি করতে পারেনি। মোট তিনটি কেলেঙ্কারিকে একত্রিত করে এই চার্জশিট তৈরির কাজ চলছে। এর মধ্যে উড়ালপুল ইস্যুতে রাজ্য সরকারের ভিজিলেন্স তদন্তেও বাদল চৌধুরীর বিরুদ্ধে জুতসই কোন তথ্য প্রমান পায়নি বলে এই মামলাটিকে চার্জশিট থেকে বাদ রাখার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। কেননা, পূর্ত দপ্তরের উড়ালপুল কেলেঙ্কারির নিয়ে যে এফ আই আর দায়ের করা হয়েছিল সেখানে গোপন আর্থিক কোন লেনদেনের অভিযোগ প্রমানিত হয়নি। তবে কিছু নির্মাণ কাজের বরাত প্রদান নিয়ে রাজ্য মন্ত্রিসভাকে ঘুমে রেখে অতিরিক্ত অর্থ কিছু ঠিকাদারকে পাইয়ে দেওয়ার চেষ্টা হয়েছে বলে চার্জশিটে উল্লেখ করার চেষ্টা হচ্ছে। তাছাড়া ওয়াই পি সিং-এর বিরুদ্ধে মন্ত্রিসভাকে ঘুমে রেখে কিছু নির্মান বরাত প্রদানের অভিযোগ আনার চেষ্টা হচ্ছে। তবে সুনীল ভৌমিক-এর বিরুদ্ধে পূর্ত কাজ বিলি বন্টনে সি পি ডবলু ও পূর্ত দপ্তরের কাস্ট প্লাস সিডিউল অমান্য করার কিছু অভিযোগ আনা হচ্ছে চার্জশিটে।

পূর্ত দপ্তর, রাজ্য সচিবালয় ও পুলিশের সি আই ডি শাখার যেসব অফিসার পদাধিকারীরা বহু চর্চিত পূর্ত দপ্তরের উড়াল পুল ও কিছু বহু পুরানো নির্মাণ বরাত নিয়ে মামলার তদারকি ও চার্জশিট প্রদানে তথ্য সরবরাহ করেছে বা চার্জশিট তৈরির কাজে যুক্ত তারাও তেমন জুতসই কোন তথ্য প্রমানাদি সেরকম ভাবে চার্জশিট তৈরির জন্যে সংগ্রহ করতে পারেনি বলে প্রাপ্ত খবরে প্রকাশ। কিন্তু এডিসি ভোটের মুখে কিছু একটা সামনে আনতে হবে এই লক্ষ্যে আগামী কিছুদিনের মধ্যেই এই মামলার চার্জশিট আদালতে জমা করা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

প্রসঙ্গত, পূর্ত আর্থিক কেলেঙ্কারি মামলায় অভিযোগ এনে প্রাক্তন মন্ত্রী বাদল চৌধুরীকে গ্রেপ্তার করতে ব্যর্থতার অভিযোগ এনে তখন তৎকালীন পশ্চিম জেলার এস পি অজিত প্রতাপ সিং, এক ডি এস পি সহ মোট নয়জন পুলিশ আধিকারিককে বরখাস্ত করা হয়েছিল। একই সাথে বরখাস্ত করা হয়েছিল বাদল চৌধুরীর ব্যক্তিগত তিন নিরাপত্তা রক্ষীকেও। কিন্তু ধাপে ধাপে তাঁদের সবার বিরুদ্ধেই বরখাস্তের আদেশ প্রত্যাহৃত হয়ে যায়। কারোর বিরুদ্ধেই কর্তব্যে গাফিলতির অভিযোগ প্রমানিত হয়নি।


You can post your comments below  
নিচে আপনি আপনার মন্তব্য বাংলাতেও লিখতে পারেন।  
বিঃ দ্রঃ
আপনার মন্তব্য বা কমেন্ট ইংরেজি ও বাংলা উভয় ভাষাতেই লিখতে পারেন। বাংলায় কোন মন্তব্য লিখতে হলে কোন ইউনিকোড বাংলা ফন্টেই লিখতে হবে যেমন আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড (Avro Keyboard)। আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ডের সাহায্যে মাক্রোসফট্ ওয়ার্ডে (Microsoft Word) টাইপ করে সেখান থেকে কপি করে কমেন্ট বা মন্তব্য বক্সে পেস্ট করতে পারেন। আপনার কম্পিউটারে আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড বাংলা সফ্টওয়ার না থাকলে নিম্নে দেয়া লিঙ্কে (Link) ক্লিক করে ফ্রিতে ডাওনলোড করে নিতে পারেন।
 
Free Download Avro Keyboard  
Name *  
Email *  
Address  
Comments *  
 
 
Posted comments
Posted OnNameEmailComment
15.01.2021Pranab Dutta[email protected]What a waste of Tax payer’s money,! It costs money to run a law suit. Where the money is coming from. Definitely the govt fund. Should not we spent this money for other developmental work such as education and health care. Wake up dear Brothers.