আগরতলা প্রেসক্লাবের নির্বাচনে কোনো মুখ্যমন্ত্রীর সরাসরি জড়িয়ে যাওয়া নজিরবিহীন এবং অনভিপ্রেতঃ সুবল কুমার দে

নিজস্ব প্রতিবেদন

আগরতলা, ১৪ , : অবশেষে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব নিজেই প্রমাণ করলেন যে ঐতিহ্যবাহী আগরতলা প্রেসক্লাবের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচনে তিনি এবং তার সরকার সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা বিরোধীদের পক্ষে বিশেষ ভূমিকা নিয়েছিল। সদ্যসমাপ্ত এই নির্বাচনে মুখ্যমন্ত্রী অত্যন্ত অনৈতিকভাবে সাংবাদিকদের দুটি দলে ভাগ করেছেন। এই নির্বাচনে সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতাকামী পক্ষ "সেভ আগরতলা প্রেসক্লাব" বনাম শাসকদলের একাংশের মদতপুষ্ট স্বাধীনতা বিরোধীদের সাংবাদিকদের নীতিগত লড়াই ছিল। মুখ্যমন্ত্রী নিজের অস্তিত্ব রক্ষার জন্য সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতা বিরোধীদের মাঠে নামিয়েছেন যার প্রমান দিলেন নিজেই। আগরতলা প্রেসক্লাবের ইতিহাসে এমন বেনজির কান্ড কখনই ঘটেনি। এই অভিযোগ করেছেন "সেভ আগরতলা প্রেসক্লাব" মঞ্চ-র পক্ষে সুবল কুমার দে।

সুবল কুমার দে-র আরও অভিযোগ, সচিবালয়ে সাংবাদিকদের একটি ক্ষুদ্র অংশকে ডেকে সম্পূর্ণ অনৈতিকভাবে মুখ্যমন্ত্রী সংবাদমাধ্যমে বিভাজনের প্রয়াস নিয়েছেন গত ১২ নভেম্বর। আগরতলা প্রেসক্লাব সাংবাদিকদের বিনোদন সংস্থা হওয়া সত্ত্বেও, এর সংবিধান অমান্য করে এই অংশের সাংবাদিকরা প্রেসক্লাবের নাম জড়িয়ে নানা অর্থনৈতিক দাবী উত্থাপন করেছেন এবং মুখ্যমন্ত্রী তাদের খুশী করতে উদ্যোগীও হয়েছেন বলে উল্লেখ করে "সেভ আগরতলা প্রেসক্লাব" মঞ্চ-র পক্ষে সুবল কুমার দে এর তীব্র নিন্দা করেছেন।

সুবল কুমার দে-র অভিযোগ, এই ঘটনায় প্রমাণিত হল নাটকের যবনিকাপাতে পর্দার পেছনে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী স্বয়ং। আগরতলা প্রেস ক্লাবের নির্বাচনে নিজের অংশগ্রহণ জহির করে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, "কারও বিরুদ্ধাচরণ করিনি, কুৎসা করিনি। প্রমাণিত হয়ে গেছে অন্ধকারের উপর আলোর জিত। আলোর পক্ষে যারা তারা "মোদী" এবং যারা বিপক্ষে তারা "অন্ধকারে তলিয়ে যায়" বলেও মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী। সুবল কুমার দে-র মতে প্রেসক্লাবের মতো সংস্থা সম্পর্কে মুখ্যমন্ত্রীর এজাতীয় মন্তব্য রাজনৈতিক অভিসন্ধিপূর্ণ। সুবল কুমার দে বলেছেন, মুখ্যমন্ত্রী বিহার বিধানসভা নির্বাচন ও সাংবদিকদের সংস্থা আগরতলা প্রেস ক্লাবকে এক সুত্রে গেঁথে রাজনৈতিক ঝোল টানার চেষ্টা করেছেন। প্রেস ক্লাবের জয়কে করোনার বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের কাজের সিলমোহর বলেও দাবি করেছেন তিনি ।সুবল কুমার দে বলেছেন, আগরতলা প্রেসক্লাবের নির্বাচনে কোনো মুখ্যমন্ত্রীর এভাবে সরাসরি জড়িয়ে যাওয়া নজিরবিহীন এবং অনভিপ্রেত।


You can post your comments below  
নিচে আপনি আপনার মন্তব্য বাংলাতেও লিখতে পারেন।  
বিঃ দ্রঃ
আপনার মন্তব্য বা কমেন্ট ইংরেজি ও বাংলা উভয় ভাষাতেই লিখতে পারেন। বাংলায় কোন মন্তব্য লিখতে হলে কোন ইউনিকোড বাংলা ফন্টেই লিখতে হবে যেমন আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড (Avro Keyboard)। আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ডের সাহায্যে মাক্রোসফট্ ওয়ার্ডে (Microsoft Word) টাইপ করে সেখান থেকে কপি করে কমেন্ট বা মন্তব্য বক্সে পেস্ট করতে পারেন। আপনার কম্পিউটারে আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড বাংলা সফ্টওয়ার না থাকলে নিম্নে দেয়া লিঙ্কে (Link) ক্লিক করে ফ্রিতে ডাওনলোড করে নিতে পারেন।
 
Free Download Avro Keyboard  
Name *  
Email *  
Address  
Comments *  
 
 
Posted comments
Till now no approved comments is available.