আগরতলা প্রেসক্লাবে মিলিঝুলি কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদন

আগরতলা, নভেম্বর ৯, : সংবাদ মাধ্যমের কন্ঠরোধ করার প্রয়াস, সাংবাদিকদের উপর ক্রমাগত আক্রমণ, কিছু সংবাদপত্রকে মুখ্যমন্ত্রীর প্রকাশ্য হুমকি ইত্যাদির পরিপ্রেক্ষিতে সংবাদ মাধ্যমের বড় অংশ যখন অ্যাসেম্বলি অব জার্নালিস্টস সংগঠনের নেতৃত্বে সারা রাজ্যে প্রতিবাদমুখর হয়েছেন, সাংবাদিকরা সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা এবং জনগণের মত প্রকাশের সংবিধান-স্বীকৃত স্বাধীনতার জন্য সোচ্চার হয়েছেন, তখনই গতকাল আগরতলা প্রেস ক্লাবের দ্বিবার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

এমনকি এই নির্বাচনের একদিন আগেও একটি খবর প্রকাশ করার জেরে আগরতলা থেকে প্রকাশিত প্রতিবাদী কলম পত্রিকার প্যাকেট উদয়পুরে গাড়ি থেকে নামিয়ে ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। স্থানীয় সাংবাদিককে আক্রমণের চেষ্টা হয়েছে। সব ক্ষেত্রেই অভিযোগের আঙুল উঠেছে শাসক দলের সমর্থকদের বিরুদ্ধে। সাংবাদিকরা আগরতলায় পুলিশ সদর দফতরের সামনে এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছেন।

সাধারণ মানুষ হয়তো দেখতে চেয়েছেন, আগরতলা প্রেস ক্লাবের নির্বাচনে সদস্যদের রায় কোন দিকে যায়। ক্লাবের ২৮৮ জন সদস্য, যাঁদের প্রায় অর্ধেকই নূতন সদস্যপদ পেয়েছেন, তাঁরা নিশ্চিতভাবেই বিভাজিত রায় দিয়েছেন।

'সেভ আগরতলা প্রেস ক্লাব' নাম নিয়ে সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতার দাবিতে এবং সরকারের কালা সার্কুলার-সহ মুখ্যমন্ত্রীর হুমকি ও সাংবাদিকদের উপর আক্রমণের বিরুদ্ধে সাম্প্রতিক প্রতিবাদী আন্দোলনের নেতৃত্বে থাকা বর্ষীয়ান সম্পাদক সুবলকুমার দে জয়ী হয়েছেন ক্লাবের সভাপতি পদে। সহসভাপতি পদে জয়ী হয়েছেন এই আন্দোলনের আরেক নেতা অরুণ নাথ। এ ছাড়া ৫ টি কার্যকরী সদস্য পদের ৩ জনও জয়ী হয়েছেন এই প্যানেল থেকে। অন্যদিকে, 'ফোরাম ফর ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড প্রটেকশন ফর মিডিয়া কমিউনিটি' প্যানেল থেকে প্রনব সরকার সম্পাদক পদে পুনর্নির্বাচিত হয়েছেন। ফোরামের নেতা প্রণব সরকার লক্ষ্যণীয়ভাবে ভোটের প্রচারে সাংবাদিকদের নিরাপত্তা দেবার কথা ভোটারদের বলেছেন। তাঁর প্যানেল থেকেই কোষাধ্যক্ষ এবং দুজন সহসম্পাদকও নির্বাচিত হয়েছেন।

রায় বিভাজিত হলেও দুই পক্ষকেই এই নির্বাচনে সাংবাদিকদের নিরাপত্তার ইস্যুটিকে বিশেষ গুরুত্ব দিতে হয়েছে। ফলাফলে নিঃসেন্দহে প্রধান ফ্যাক্টর হয়েছেন নতুন ভোটাররা । সাংবাদিক হিসেবে এবং ন্যূনতম তিন বছরের কাজের অভিজ্ঞতার প্রশ্নে এঁদের একটা বড় অংশের ক্রেডেন্সিয়াল নিয়ে যে সংশয় রয়েছে, সেটা নিশ্চয়ই নূতন কমিটি দূর করবেন।

গতকালের ভোটের ফলাফল সম্পর্কে অনেক বর্ষীয়ান সাংবাদিক, গণতন্ত্র ও সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতার জন্য লড়াই তামাদি হয়নি বা শেষ হয়েও যায়নি। বরং সেই লড়াই আরও শক্তিশালী করার প্রয়োজনীয়তাই আগরতলা প্রেস ক্লাবের নির্বাচন থেকে স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। যেহেতু দু'পক্ষই কমবেশি সাংবাদিক ও সংবাদ মাধ্যমের নিরাপত্তা, স্বাধীনতার ধ্বনি তুলেছেন, সুতরাং এটা বলা অসঙ্গত হবে না যে, প্রেস ক্লাবের সদস্যরা বিভাজিত রায় দিলেও এই ধ্বনি ভবিষ্যতে আরও উচ্চকিত হবে।



গতকালের ভোটের ফলাফল অনুযায়ী প্রেসক্লাবের নতুন কমিটি নিম্নরূপ,

সভাপতি - সুবল কুমার দে

সহ সভাপতি - অরুন নাথ

সম্পাদক - প্রনব সরকার

সহ সম্পাদক- রমাকান্ত দে

সহ সম্পাদক- দেবব্রত দেব

কোষাধ্যক্ষ - তপন মজুমদার

সদস্য- মিহির লাল সরকার, কমল চৌধুরী, রঞ্জন রায়, প্রবীর দাস ও মনীষ আচার্য ।


You can post your comments below  
নিচে আপনি আপনার মন্তব্য বাংলাতেও লিখতে পারেন।  
বিঃ দ্রঃ
আপনার মন্তব্য বা কমেন্ট ইংরেজি ও বাংলা উভয় ভাষাতেই লিখতে পারেন। বাংলায় কোন মন্তব্য লিখতে হলে কোন ইউনিকোড বাংলা ফন্টেই লিখতে হবে যেমন আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড (Avro Keyboard)। আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ডের সাহায্যে মাক্রোসফট্ ওয়ার্ডে (Microsoft Word) টাইপ করে সেখান থেকে কপি করে কমেন্ট বা মন্তব্য বক্সে পেস্ট করতে পারেন। আপনার কম্পিউটারে আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড বাংলা সফ্টওয়ার না থাকলে নিম্নে দেয়া লিঙ্কে (Link) ক্লিক করে ফ্রিতে ডাওনলোড করে নিতে পারেন।
 
Free Download Avro Keyboard  
Name *  
Email *  
Address  
Comments *  
 
 
Posted comments
Till now no approved comments is available.