রাজ্যে রাজনীতির পারদ চড়ছে, চাম্পাহাউরে দোকানে অগ্নিসংযোগ, বিশালগড়ে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ, প্রতাপগড়ে লুঠপাঠ

নিজস্ব প্রতিবেদন

আগরতলা, আগষ্ট ২৭, : গত ২৬ আগষ্ট রাজ্যজুড়ে সিপিএম-এর ১৬ দফা দাবীর প্রেক্ষিতে আন্দোলন কর্মসুচীর পর থেকে গত ২৪ ঘন্টায় রাজ্যের বেশ কিছু জায়গায় বেশ কিছু সিপিএম সমর্থিত পরিবারে ব্যাপক হামলা সন্ত্রাস চালানো হয়েছে বলে আজ রাজধানীতে সিপিএম সদর দপ্তরের তরফে অভিযোগ করা হয়েছে।

সিপিএম-এর অভিযোগ অনুযায়ী খোয়াই, তেলিয়ামুড়া, উদয়পুর, অমরপুর, সাব্রুম, করবুক, রুপাইছড়ি, শহরতলী জিরানীয়া, প্রতাপগড় প্রভৃতি এলাকাতে গতকাল সন্ধ্যারাতের পর থেকেই কিছু বাইক বাহিনী দুষ্কৃতী বাছাই করা কিছু সিপিএম সমর্থকদের বাড়ীতে হামলা সমত্রাস চালায়। উদয়পুরে ডি ওয়াই এফ আই নেতা চন্দন দাসের বাড়ীতে হামলা করা হয়েছে। বাড়ীর শিশু ও মহিলারা পর্যন্ত রেহাই পায়নি।

একইরকমভাবে বিশালগড়ে সিপিএম নেতা পার্থ প্রতীম মজুমদার, সন্তোষ বিশ্বাস ও নারীনেত্রী পূর্ণিমা বিশ্বাস-এর বাড়ীতে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করা হয়েছে বলে সিপিএম-এর অভিযোগ। তাছড়া চাম্পাহাউরে বেশ কিছু দোকানে অগ্নিসংযোগ করা হয়। সিপিএম রাজ্য সদর দপ্তরের তরফে বলা হয়েছে, প্রতিটি ক্ষেত্রেই তারা স্থানীয় পুলিশকে এসব হামলা সন্ত্রাসের ঘটনাগুলি অবহিত করেছে। কিন্তু একটি ক্ষেত্রেও পুলিশ এখন পর্যন্ত কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহন করেনি। এর আগে গতকাল ও গত পরশু ১৬ দফা দাবীর আন্দোলনের প্রাক্কালে রাজ্যের অন্তত ৩০টি জায়গাতে সিপিএম সমর্থকদের উপর হামলা করা হয় বলে গতকাল এক সাংবাদিক সম্মেলনে সিপিএম রাজ্য সম্পাদক অভিযোগ করেছিলেন।

এদিকে আজ, ত্রিপুরা তপশিলী জাতি সমন্বয় সমিতি ত্রিপুরা রাজ্য কমিটি-এ এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, গতকাল রাতে ত্রিপুরা তপশিলী জাতি সমন্বয় সমিতির রাজ্য কমিটির সদস্য প্রতাপগড় এলাকার চন্দন দাসের বাড়ীতে প্রচন্ড ভাঙ্গচুর এবং লুটপাট করে বিজেপি-র সমাজবিরোধীরা। চন্দন দাস, তার স্ত্রী এবং ছেলে পালিয়ে কোন রকমে জীবন রক্ষা করেন। ঐ এলাকায় আরও কয়েকটি বাড়ীতেও আক্রমন করা হয়। ৮০ বছরের বৃদ্ধাও তাদের আক্রমন থেকে রক্ষা পায়নি। গতকাল রাতেই উদয়পুরে সংগঠনের বিভাগীয় কমিটির নেতা বিষ্ণু দাস এবং তার স্ত্রীকে ঘরে ঢুকে মারধর করে, তার দোকান লুটপাট করে নিয়ে যায় বিজেপি-র সমাজদ্রোহীরা। এছাড়া রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে নেতা কর্মীদের উপর আক্রমন, বাড়ি ঘর ভাঙ্গচুর করে নৈরাজ্য তৈরী করার চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ।

ত্রিপুরা তপশিলী জাতি সমন্বয় সমিতির পক্ষে রতন ভৌমিক রাজ্যে এই ঘটনাবলীর তীব্র নিন্দা করছেন এবং পুলিশকে যথাযথ তদন্তকরে দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করা দাবী করছেন।


You can post your comments below  
নিচে আপনি আপনার মন্তব্য বাংলাতেও লিখতে পারেন।  
বিঃ দ্রঃ
আপনার মন্তব্য বা কমেন্ট ইংরেজি ও বাংলা উভয় ভাষাতেই লিখতে পারেন। বাংলায় কোন মন্তব্য লিখতে হলে কোন ইউনিকোড বাংলা ফন্টেই লিখতে হবে যেমন আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড (Avro Keyboard)। আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ডের সাহায্যে মাক্রোসফট্ ওয়ার্ডে (Microsoft Word) টাইপ করে সেখান থেকে কপি করে কমেন্ট বা মন্তব্য বক্সে পেস্ট করতে পারেন। আপনার কম্পিউটারে আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড বাংলা সফ্টওয়ার না থাকলে নিম্নে দেয়া লিঙ্কে (Link) ক্লিক করে ফ্রিতে ডাওনলোড করে নিতে পারেন।
 
Free Download Avro Keyboard  
Name *  
Email *  
Address  
Comments *  
 
 
Posted comments
Till now no approved comments is available.