করোনা আবহের মধ্যেই রাজ্যে মাফিয়া তান্ডব মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে

নিজস্ব প্রতিবেদন

আগরতলা, জুন ২০, : করোনা আবহের মধ্যেই রাজ্যে হঠাৎ করেই মাফিয়া তান্ডব মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। এরা এত বেপরোয়া হয়ে উঠেছে যে পুলিশের উপর আক্রমণ শানাচ্ছে, ভাঙচুর করছে উর্দিপড়াদের গাড়ী। নিরাপত্তা কর্মীদের উপর এমন হামলা হচ্ছে, অনেক সময় এরা নিজেরাই হতবাক ও বিব্রত হয়ে পড়ছে। ইতিমধ্যেই কয়েক জন পুলিশ কর্মী আহত হয়েছেন এবং এরা হাসপাতালে চিকিৎসিত হচ্ছেন। এই হামলা, আক্রমন মোকাবেলা করেই নিরাপত্তা কর্মীরা নেশাজাতীয় দ্রব্য উদ্ধার করেছেন। মাফিয়া তান্ডবের সাথে পাল্লা দিয়ে বাইক বাহিনীর দৌরাত্মও উদ্বেগজনক ভাবে বেড়ে চলেছে। এঁরা মানুষকে মানুষ বলে মনে করেন না। এদের দৌরাত্ম দিন দিন এমন ভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে তা উদ্বেগজনক।

বলি গত কদিনে হঠাৎ করেই কেন মাফিয়া দৌরাত্ম রকেট গতিতে বৃদ্ধি পেয়েছে? সোনামুড়া মহকুমা মাফিয়া সমুদ্র বলেই পরিচিত। ওখানেই যতসব মাফিয়া ডনদের ঠেক। কেননা ওখানে বসেই ওরা এপার ওপার চালায়। দুপারেই এদের নেটওয়ার্ক। ওদের নেটওয়ার্ক খুবই শক্তিশালী। এদের মাধ্যমেই সব কিছু চলে। অর্থাৎ পাচার বানিজ্য। গাঁজা, নেশাজাতীয় পন্য এন্তার ওপারে যায়। সব সীমান্ত এলাকায়ই পাচার চলে তবে কম আর বেশি। এঁরা অপেক্ষাকৃত নিরাপদ এলাকাই খূজে থাকে।এটাই স্বাভাবিক।

তবে এ রাজ্যে অস্বাভাবিক হল নিরাপত্তা কর্মীদের উপর বেপরোয়া আক্রমন চালানো। আগেও হয়েছে এধরনের আক্রমণ, তবে এবারের আক্রমনের ধরন অন্যরকম। শুধু তাই নয় বেপডোয়া ভাবে আক্রমন চালাচ্ছে এই মাফিয়া চাইদের দল।

প্রশ্ন হচ্ছে কেন আক্রমনের ধরন মরীয়া ও বেপরোয়া?

প্রশ্ন উঠেছে, প্রশাসনের কাছে মাফিয়াদের তৎপরতা বৃদ্ধির কি কোন ধরনের খবর ছিল না? বলাই চলে যে, না ছিল না। বা থাকলেও এরা চুপচাপই ছিল।যদি থাকতো তাহলে নিশ্চয়ই প্রশাসনিক তরফে ব্যবস্হা নেওয়া হত।

প্রশ্ন উঠেছে, প্রশাসনে কেন এমন স্হবিরতা? এ নিয়ে ভাবনা চিন্তার প্রয়োজন রয়েছে। তদোপরি গোয়েন্দা পুলিশের ভূমিকা কি ছিল? সেটাও ভেবে দেখা জরুরী প্রয়োজন।

রাজধানী আগরতলায় মাফিয়াদের মূল ঠেক কামারপুকুর থেকে চন্দ্রপুর, বটতলা, রাধানগর, লেইক চৌমুহনী। এছাড়াও আরও বহু এলাকায় ডনবাবুরা আছে। এদের নানারঙের গাড়ী। এগুলো পার্ক করা থাকে জাতীয় সড়কের পাশে। হঠাৎ করেই এগুলি চলতে শুরু করে।চালকরাও নাকি জানেন না, মালিক কে বা কারা? তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে এদের নিয়োগ করা হয়েছে।

এদের ক্যারিয়ার একেক জনের বাইক রয়েছে। বাইক আরোহী যারা তাঁরা বিভৎস ভাবে বাইক চালিয়ে থাকে। এদের মাধ্যমেই বেশি দূর্ঘটনা ঘটে।


You can post your comments below  
নিচে আপনি আপনার মন্তব্য বাংলাতেও লিখতে পারেন।  
বিঃ দ্রঃ
আপনার মন্তব্য বা কমেন্ট ইংরেজি ও বাংলা উভয় ভাষাতেই লিখতে পারেন। বাংলায় কোন মন্তব্য লিখতে হলে কোন ইউনিকোড বাংলা ফন্টেই লিখতে হবে যেমন আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড (Avro Keyboard)। আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ডের সাহায্যে মাক্রোসফট্ ওয়ার্ডে (Microsoft Word) টাইপ করে সেখান থেকে কপি করে কমেন্ট বা মন্তব্য বক্সে পেস্ট করতে পারেন। আপনার কম্পিউটারে আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড বাংলা সফ্টওয়ার না থাকলে নিম্নে দেয়া লিঙ্কে (Link) ক্লিক করে ফ্রিতে ডাওনলোড করে নিতে পারেন।
 
Free Download Avro Keyboard  
Name *  
Email *  
Address  
Comments *  
 
 
Posted comments
Till now no approved comments is available.