আইআইটি-জেইই এবং মেডিকেল এন্ট্রান্স পরীক্ষা প্রস্তুতির জন্যে কোটা-র প্রিমিয়াম কোচিং সেন্টার, “পূজা বনসল ক্লাসেস” শীঘ্রই স্টাডি সেন্টার খুলবে ত্রিপুরায়

নিজস্ব প্রতিবেদন

আগরতলা, মে ২৬, : রাজস্থান-এর কোটা-র আইআইটি-জেইই (IIT-JEE) এবং অল ইন্ডিয়া মেডিকেল এন্ট্রান্স (NEET)-এর পরীক্ষা প্রস্তুতির প্রিমিয়াম কোচিং সেন্টার, “পূজা বনসল ক্লাসেস” খুব শীঘ্রই ত্রিপুরায় তাদের প্রথম ও একমাত্র স্টাডি সেন্টারটি শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজধানী আগরতলায়। কোটা-র “পূজা বনসল ক্লাসেস” আজ আইআইটি-জেইই এবং অল ইন্ডিয়া মেডিকেল এন্ট্রান্স (নেট)পরীক্ষা প্রস্তুতির নিশ্চিত সাফল্যের দেশজুড়ে একটা নামী কোচিং প্রতিষ্ঠান। আইআইটি-জেইই-তে নির্বাচনের সংখ্যার দিক থেকে এখন পর্যন্ত অন্য কোনও ইনস্টিটিউট “পূজা বনসল ক্লাসেস”-এর কাছাকাছি আসতে পারেনি। বর্তমানে তাদের সদর দপ্তর কোটা এবং কুয়েতে একমাত্র বিদেশী স্টাডি সেন্টারটি ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থানে ১৬ টির মতো স্টাডি সেন্টার রয়েছে। ত্রিপুরা স্টাডি সেন্টারটি ভারতের ১৭ তম এবং উত্তরপূর্বাঞ্চলে প্রথম এ জাতীয় স্টাডি সেন্টার। “পূজা বনসল ক্লাসেস”- এর ত্রিপুরা স্টাডি সেন্টারটি করা হচ্ছে ত্রিপুরাইনফো ডটকম- এর এয়ারপোর্ট রোডে লিচুবাগানস্থিত অফিসে ।

কোটা-র “পূজা বনসল ক্লাসেস”-এর অন্যতম শীর্ষ কোরডিনেটর (একাডেমিক এফেয়ারস) শশাঙ্ক গর্গ বলেছেন, লকডাউনের কারনে প্রাথমিক ভাবে তারা তাদের আগরতলাস্থিত নতুন স্টাডি সেন্টার–এর মাধ্যমে অনলাইন ক্লাস এবং পরীক্ষার অনুশীলন পর্ব শুরু করবেন এবং কোভিড -১৯ লকডাউন শেষ হওয়ার পরে তারা তাদের অফলাইন ক্লাসও শুরু করবেন এবং সেই অনুসারে আগরতলা স্টাডি সেন্টারে শ্রেণিকক্ষ প্রোগ্রাম পরিকাঠামো নির্মাণ কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়েছে।

শশাঙ্ক গর্গ আরও বলেছেন, ত্রিপুরা এবং উত্তর-পূর্ব ভারতের অন্যান্য অঞ্চলের বেশিরভাগ শিক্ষার্থী জয়পুরের কোটায় আইআইটি-জেইই (IIT-JEE) এবং অল ইন্ডিয়া মেডিকেল এন্ট্রান্স (NEET)-এর পরীক্ষা প্রস্তুতিতে পড়াশোনা করতে গিয়ে থাকে। কিন্তু এবছর হঠাৎ করে কোভিড -১৯ জনিত লকডাউনের কারণে ছাত্রছাত্রীদের তাদের রাজ্যে ফিরে আসতে হয়েছে। তাই শিক্ষার্থী ছাত্রদের ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে “পুজা বনসল ক্লাসেস” কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের জন্য তাদের অনলাইন ক্লাস শুরু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। শশাঙ্ক বলেছেন, ত্রিপুরার প্রচুর ছাত্রছাত্রী জয়পুরের কোটায় আইআইটি-জেইই (IIT-JEE) এবং অল ইন্ডিয়া মেডিকেল এন্ট্রান্স (NEET)-এর পরীক্ষা প্রস্তুতিতে পড়াশোনা করতে প্রতি বছরই গিয়ে থাকে। তাই তারা ত্রিপুরার শিক্ষার্থীদের জন্য উদ্বিগ্ন এবং একারণেই তারা অনলাইন ক্লাস শুরুর সাথে সাথে ত্রিপুরাতে একটি স্থায়ী স্টাডি সেন্টার খোলার সিদ্দান্ত নিয়েছেন। শশাঙ্ক আরও বলেছেন যে তারা নয়া এডমিশানের ক্ষেত্রে সম্প্রতি কোভিড-১৯ জনিত লকডাউনের কারণে কোটা ছেড়ে চলে আসা ত্রিপুরার শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার দেবে। তবে, অফলাইন ক্লাসে, কোভিড -১৯ জনিত লকডাউন শেষ হওয়ার সাথে সাথে ত্রিপুরা এবং দেশের উত্তর পূর্ব অংশের নতুন শিক্ষার্থীদের আগরতলায় নতুন স্থায়ী স্টাডি সেন্টার-এ আগে এলে আগে সুজুগ নীতিতে ভর্তির সুযোগ দেবেন। তিনি আরও জানান যে আইআইটি-জেইই ও এনইইটি-র কোচিং-এর সাথে সাথে তারা ক্লাসে অষ্টম শ্রেণি থেকে দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন বোর্ড এক্সামের প্রস্তুতিও করিয়ে থাকে। তাই কোন অভিবাভক চাইলে সপ্তম শ্রেণির পর থেকেই আইআইটি-জেইই ও এনইইটি-র কোচিং-এর জন্যে ভর্তির সুযোগ রয়েছে।

কোটা-র “পূজা বনসল ক্লাসেস”-এর অন্যতম শীর্ষ কোরডিনেটর (একাডেমিক এফেয়ারস) শশাঙ্ক গর্গ ত্রিপুরাইনফো ডটকমকে আরও বলেছেন, বর্তমানে তাদের অনলাইন শ্রেণিকক্ষ প্রোগ্রামের জন্য ভর্তি 2020-2021 এবং 2021-2022 সেশনের সমস্ত প্রত্যাশীদের জন্য উন্মুক্ত। সপ্তম থেকে দ্বাদশ শ্রেণির মেধাবী শিক্ষার্থীদের জন্য বৃত্তিও পাওয়া যায়। আগরতলা হেল্পলাইন নম্বর ০৩৮১-২৪১-০১৭৪, ৮৪১৪৮৬০৩২৬. অনলাইনে ভর্তির জন্য আবেদন করুনঃ http://for.bansaliitjee.com/bansal_form/online-form.php


You can post your comments below  
নিচে আপনি আপনার মন্তব্য বাংলাতেও লিখতে পারেন।  
বিঃ দ্রঃ
আপনার মন্তব্য বা কমেন্ট ইংরেজি ও বাংলা উভয় ভাষাতেই লিখতে পারেন। বাংলায় কোন মন্তব্য লিখতে হলে কোন ইউনিকোড বাংলা ফন্টেই লিখতে হবে যেমন আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড (Avro Keyboard)। আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ডের সাহায্যে মাক্রোসফট্ ওয়ার্ডে (Microsoft Word) টাইপ করে সেখান থেকে কপি করে কমেন্ট বা মন্তব্য বক্সে পেস্ট করতে পারেন। আপনার কম্পিউটারে আমার বাংলা কিংবা অভ্রো কী-বোর্ড বাংলা সফ্টওয়ার না থাকলে নিম্নে দেয়া লিঙ্কে (Link) ক্লিক করে ফ্রিতে ডাওনলোড করে নিতে পারেন।
 
Free Download Avro Keyboard  
Name *  
Email *  
Address  
Comments *  
 
 
Posted comments
Till now no approved comments is available.